বাংলাদেশের সেরা ১০ টি বাইক এবং প্রাইস

বাইক শব্দটির সাথে আমাদের সবার একটি আবেগ জড়িয়ে থাকে। কারণ বাইক একই সাথে যেমন স্ট্যান্ডার্ড তেমনি টাইম সেভার। দ্রুত গতি এবং স্বল্প মেইনটেইন খরচ হওয়ার কারনে বাইকের প্রতি মানুষের আকর্ষণ বেশি। আজকাল আসে পাশে খেয়াল করলেই আমরা দেখতে পাবো প্রায় সবাই হয় বাইক ইউজ করে নয়তো ভবিষ্যতে কেনার প্ল্যান করে রেখেছে। বাংলাদেশে সিসি লিমিট থাকার কারনে আমরা চাইলেই বাইরের দেশ থেকে পছন্দের বাইক ইমপোর্ট করতে পারব না। তবে বর্তমানে বাংলাদেশে ইউজ এবং মেইনটেইন খরচ এসব দিক বিবেচনা করে কোন কোন বাইক বেস্ট তা নিয়ে আমাদের এই আয়োজন। আমাদের আজকের লেখায় আপনি বাংলাদেশের সেরা ১০ টি বাইক এবং প্রাইস সম্পর্কে ধারণা পাবেন।

বাংলাদেশের সেরা ১০ টি বাইক এবং প্রাইস

বর্তমানে বাংলাদেশে সিসি লিমিট বাড়ানোর যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে তা যদি সফল হয় তবে বাইরে থেকে অনেক ভালো ভালো বাইক দেশে আসবে। যাহোক, এখানে পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশের বেস্ট ১০ টি বাইক এবং তাদের প্রাইস উল্লেখ করা হলো।

Yamaha R15 V3.0

একে বর্তমানে বাংলাদেশের সব থেকে সুন্দর বাইক বলা হয়। R15 v3 এর ডিজাইন অনেক বেশি আধুনিক এবং অনেক কমফোর্টেবল। এতে স্পোর্ট বাইকের সিটের স্টাইল দেওয়া আছে যা এতে এক অন্যরকম লুক অ্যাড করেছে। এছাড়া এর ফুয়েল ট্যাঙ্ক R1 এর থেকে বড় এবং দেখতে মনে হবে এতে এক্সট্রা মাস্কিউলার পার্ট যোগ হয়েছে। মোটকথা R15 v3 একটি সুপরিচিত স্পোর্টস বাইক যা স্পোর্টস এবং পার্সোনাল উভয় কাজেই ইউজ করা যায়।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 4,95,000 টাকা
  • কালার- ঠান্ডার গ্রে, ডার্ক নাইট, রেসিং ব্লু
  • ইঞ্জিন সিসি- 155 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 30 kmpl
  • ওয়েট- 142 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Honda CBR150R Indo

হোন্ডা CBR150R Indonesian ভার্সন বাংলাদেশে আসার পর অনেক পপুলারিটি পায়। এর পেছনে কারণ হলো এই বাইক দেখতে অনেক সুন্দর এবং এর গতি অনেক আক্রমণাত্মক। Honda CBR150R বাইকটি সিঙ্গেল সিলিন্ডার স্পোর্টস বাইক হিসেবেই বেশি পরিচিত। এর সিটিং স্টাইল অনেক অনেক কমফোর্টেবল। বর্তমানে এই বাইক ইন্দোনেশিয়া তৈরি করে যা পূর্বে থাইল্যান্ড তৈরি করতো। বাংলাদেশে এর অনেকগুলো কালার ভেরিয়েশন পাওয়া যায়।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 4,50,000 টাকা
  • কালার- নিট্রো ব্ল্যাক, রেসিং রেড, রেভুলেশন হোয়াইট, মটো জিপি এডিশন
  • ইঞ্জিন সিসি- 155 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 30 kmpl
  • ওয়েট- 142 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Aprilia GPR 150

এটি একটি ইটালিয়ান বাইক। Aprilia GPR দেখতে দানবের মতো এবং এর পারফর্মেন্স লেভেল অনেক হাই। যাহোক Aprilia GPR এর দাম অনেক বেশি হওয়ার কারনে খুব কম মানুষ এই বাইক ইউজ করে। তবে এর স্টাইল এবং কালার অনেক আধুনিক এবং সহজেই পছন্দ করার মত। এর কিছু সীমাবদ্ধতার মধ্যে একটি হলো Aprilia GPR একটি সিঙ্গেল সিট বাইক। অর্থাৎ আপনাকে একাই ড্রাইভ করতে হবে কারণ পিলিওন নেওয়ার জায়গা রাখা হয়নি। Aprilia GPR এর টায়ার অনেক জায়গা জুড়ে বিস্তৃত যার ফলে এটি রাইড করতে অনেক কমফোর্ট ফিল হয়।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 3,66,000 টাকা
  • কালার- ব্ল্যাক, রেড, হোয়াইট
  • ইঞ্জিন সিসি- 149 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 45 kmpl
  • ওয়েট- 140 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

KTM Duke 125

এটি একটি অস্ট্রেলিয়ান বাইক যা বাংলাদেশে আসে ২০১৭ সালের দিকে। KTM Duke এর দাম Aprilia থেকে কিছু কম হলেও এর লুক অনেক অনেক এট্রাক্টিভ। যদিও বাংলাদেশে এর সব ভেরিয়েশন অ্যাভেইলেবল না তবে যে কয়েকটা অ্যাভেইলেবল তা অনেক পপুলার।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 3,50,000 টাকা
  • কালার- ব্ল্যাক, রেড, হোয়াইট, অরেঞ্জ, ইলেকট্রিক অরেঞ্জ  
  • ইঞ্জিন সিসি- 124.7 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 40 kmpl
  • ওয়েট- 137 KG
  • এবিএস- Single Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

KTM RC 125

আমরা জানি KTM একটি ফেমাস অস্ট্রেলিয়ান বাইক নির্মাতা কোম্পানি। এরা অনেক সুন্দর এবং দামী স্পোর্টস কার তৈরি করে থাকে। তাদের KTM RC মডেল সম্প্রতি সময়ে বাংলাদেশে রিলিজ হয়। দেখতে অনেক আক্রমণাত্মক স্টাইলের এবং অনেক পাওয়ারফুল।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 4,70,000 টাকা
  • কালার- অরেঞ্জ হোয়াইট, ডার্ক গ্যাল্ভানো
  • ইঞ্জিন সিসি- 124.7 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 41.3 kmpl
  • ওয়েট- 135 KG
  • এবিএস- Single Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Suzuki GSX R150

শুধু বাংলাদেশে না সম্পূর্ণ বিশ্বে সুজুকি বাইক ব্র্যান্ড হিসেবে এক নামে পরিচিত। কারণ সুজুকি বাইক গুলো সার্ভিস এবং স্টাইলের দিক দিয়ে বেস্ট। রাস্তায় এই বাইক গুলো দানবের মত রাজ করে। যাহোক Suzuki GSX R150 এর ফ্রন্ট ভিউ সাপের মত দেখতে এবং এর পেছনের সিট অনেক হাই। সাইজে অন্যান্য বাইক থেকে একটু ছোট হলেও স্পোর্টস কার হিসেবে এই বাইকের তুলনা হয়না।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 3,50,000/3,79,950(ABS) টাকা
  • কালার- টাইটান ব্ল্যাক, স্ট্রং রেড, ব্রিলিয়ান্ট হোয়াইট, ম্যাটেলিক ট্রিটন ব্লু, ম্যাটি ব্ল্যাক
  • ইঞ্জিন সিসি- 147.3 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 45 kmpl
  • ওয়েট- 131 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Honda CB150R Exmotion

এটি অনেক পপুলার একটি বাইক যা বর্তমানে এভেইলএবল। Honda CB150R Exmotion বাইককে ন্যাকেড স্পোর্টস বাইক বলা হয়। এটি দেখতে অনেক ক্লাসিক মনে হলেও এর গতি এবং অন্যান্য সার্ভিস অনেক স্ট্রং। এর ডিজাইন অনেক অ্যাডভান্স এবং বাইকটির ফ্রন্ট ভিউ অনেকটা রাউন্ডেড। Honda CB150R Exmotion বাইকে জায়গা স্বল্প থাকলেও এতে পিলিওন নেওয়ার পর্যাপ্ত জায়গা আছে।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 5,50,000 টাকা
  • কালার- রেড, গ্রিন, গ্রে, ব্ল্যাক
  • ইঞ্জিন সিসি- 150 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 50 kmpl
  • ওয়েট- 123 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Taro GP-1

এই বাইকটি বাংলাদেশে এই কিছুদিন আগে থেকে পাওয়া যাচ্ছে। বাংলাদেশে এই বাইক ইম্পরট করছে টারো বাংলা নামক একটি প্রতিষ্ঠান। Taro GP-1 বাইকটি দেখতে অনেক স্টাইলিশ এবং রাইড করতে অনেক কমফোর্টেবল। এর ফ্রন্ট ভিউ অনেক চউরা এবং দেখতে CBR150R Indonesia বাইকটির মত। Taro GP-1 অনেক বড় এবং ভারী একটি বাইক।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 3,06,000/3,36,000 (Double Channel ABS) টাকা
  • কালার- ব্ল্যাক
  • ইঞ্জিন সিসি- 150 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 35 kmpl
  • ওয়েট- 155 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

FKM StreetFighter 165

এই বাইকের ডিজাইন অনেক ইউনিক এবং স্টাইলিশ। বর্তমানে বাংলাদেশের মার্কেটে এই বাইকের তিনটি ভেরিয়েশন পাওয়া যায়। বাইকটি দেখতে যেমন দানবের মত এর পারফরমেন্সও দানবের মতই।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 1,89,900 টাকা
  • কালার- ব্লু, রেড, ইয়েলো  
  • ইঞ্জিন সিসি- 165 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 45 kmpl
  • ওয়েট- 135 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Pulsar 160 NS

আমাদের দেশে বাজাজ অনেক পপুলার একটি মোটরসাইকেল ব্র্যান্ড। পালসার এই ব্র্যান্ডের একটি অন্যতম সফল এবং পপুলার বাইক। আমাদের দেশের সকল বাইক প্রেমীদের পছন্দের লিস্টে এই বাইক থাকবেই।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 1,99,800 টাকা
  • কালার- ব্লু, রেড, গ্রে  
  • ইঞ্জিন সিসি- 160 cc
  • গিয়ার- 5 Speed
  • মাইলেজ- 42 kmpl
  • ওয়েট- 142 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Single Disc

Suzuki Intruder 150

এই বাইক এখনো বাংলাদেশে এভেইলাবল না তবে খুব সিগ্রই এটি আমাদের দেশে রিলিজ হবে। এই বাইককে বাংলাদেশের সব থেকে সুন্দর ক্রুজার বাইক বলা হয়। এতে স্টাইলিশ ডিজাইন সহ সাইলেন্সার পাইপ ইউজ করা হয়েছে। এতে ইঞ্জিন গার্ড ইউজ করা সহ সুন্দর সিট ইউজ করা হয়েছে।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 2,75,000 টাকা
  • কালার- ব্ল্যাক, গ্রে  
  • ইঞ্জিন সিসি- 150 cc
  • গিয়ার- 5 Speed
  • মাইলেজ- 40 kmpl
  • ওয়েট- 148 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

Yamaha MT15

ইয়ামাহার এই বাইকে লেটেস্ট টেকনোলজি ইউজ করা হয়েছে যা এর স্টাইল অনেক হাই ক্লাস করে তুলেছে। এটি একটি অ্যাডভান্স হাইপার ন্যাকেড এবং ডায়নামিক স্পোর্টস বাইক। এটি রাইড করতে যেমন আরাম তেমন শহরের রাস্তায় মনস্টারের মত ছুটে চলে। বাংলাদেশে ACI Motors এর হাত ধরে Yamaha MT15 বাংলাদেশে রিলিজ হয়েছে।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 4,10,000 টাকা
  • কালার- ডার্ক ম্যাটার ব্লু, ম্যাটেলিক ব্ল্যাক, হোয়াইট অরেঞ্জ    
  • ইঞ্জিন সিসি- 155 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 42 kmpl
  • ওয়েট- 138 KG
  • ব্রেকস- Double Disk

Yamaha XSR 155

ইয়ামাহা তাদের ইউনিক ডিজাইন বাইকের জন্য গোটা বিশ্বে পপুলার। বিশেষ করে তাদের রেট্রো মডেলের বাইকে গুলো দেখতে অনেক স্টাইলিশ হয়। বাইকের পারফরমেন্স অনেক ফাস্ট যা অন্যান্য বাইক থেকে এই বাইককে আলাদা করেছে। এছাড়া Yamaha XSR বাইক বাংলাদেশে কয়েকটি ভেরিয়েশনে পাওয়া যায়।

স্পেসিফিকেশন

  • দাম- 5,45,000 টাকা
  • কালার- ব্ল্যাক, গ্রীন  
  • ইঞ্জিন সিসি- 155 cc
  • গিয়ার- 6 Speed
  • মাইলেজ- 45 kmpl
  • ওয়েট- 140 KG
  • এবিএস- Dual Channel
  • ব্রেকস- Double Disk

বাংলাদেশে পূর্বের তুলনায় স্পোর্টস বাইক গুলো দিন দিন পপুলার হচ্ছে। আগে যেমন মানুষ ফ্যামিলি বাইক গুলো বেশি পছন্দ করতো তা পরিবর্তন হয়ে এদিকে মুভ করছে। সচরাচর বাইক কিনতে গেলে আমাদের মনে নানান ধরনের প্রশ্ন আসে যে কোন বাইক পারফেক্ট হবে। আপনাদের সুবিধার্থে আমরা ২০২১ সালে বাংলাদেশের বেস্ট বাইক নিয়ে যে লিস্ট দিয়েছি তা থেকে সহজেই পছন্দের বাইক নির্বাচন করতে পারবেন। আপনাদের মূল্যবান মতামত অবশ্যই কমেন্ট বক্সে জানাবেন ধন্যবাদ।

Leave a Reply