কম তেলে বেশি চলা ৬টি মোটরসাইকেল

প্রতিদিন কর্মক্ষেত্রে যাতায়াত করার জন্য ও প্রতিনিয়ত বিভিন্ন প্রয়োজনে বাইরে সবাইকে যেতে হয়। আর রাস্তাঘাটে বের হলেই অধিকাংশ সময় ট্রাফিক জ্যামের সম্মুখীন হতে হয়। রাস্তাঘাটের যানজট এড়িয়ে অল্প সময়ে ও দ্রুত যাতায়াত করার জন্য দুই চাকার এই মোটরবাইক সবসময় সেরা। এটি ট্রাফিক জ্যামেও কম সময়ে আপনার গন্তব্যে পৌছে দিতে এর কোন জুড়ি নেই বললেই চলে। বর্তমানে মোটরবাইকের দাম আমাদের হাতের নাগালে। তাই চাইলেই আপনি কম টাকায় ভালো মানের একটি মোটরবাইক সহজেই ক্রয় করতে পারবেন। পছন্দের বা মনের মতো বাইক ক্রয় করার সময় তেল খরচের কথাটিও অনায়াসে মাথায় চলে আসে কম তেলে বেশি চলে এমন বাইকগুলোর মধ্যে বাজাজ প্লাটিনা, হিরো, টিভিএস মেট্রো ইত্যাদি বেশি জনপ্রিয়।

কম তেলে যেসব বাইক বেশি চলে সেগুলোর কিছু তালিকা নিম্নে দেয়া হলো, যার বেশি ভাগই ১০০ কিংবা ১১০ সিসি।

Runner Bullet 100cc

বাংলাদেশীয় প্রতিষ্ঠান রানার অটোমোবাইল লি: এর রানার ব্রান্ড মোটরবাইক প্রেমিকদের ভরসা অর্জন করেছে। এই ব্রান্ডের Standard ক্যাটাগরির মধ্যে ভালো একটি বাইক হচ্ছে Runner Bullet বাইক। এই বাইকের Displacement ইঞ্জিন ১০০.৫৪ সিসি যার সঙ্গে রয়েছে পেট্রোল ইঞ্জিন, চারটি স্ট্রোক, একটি সিঙ্গেল সিলিন্ডার এবং একটি এয়ার কোল্ড। রানার বুলেট বাইকের সর্বোচ্চ ‍Spead প্রতি ঘন্টায় ১০০ কি:মি: মাইলেজ প্রতি লিটারে ৫০ কি:মি:। বাইকে সামনে ডিস্ক ব্রেক ও পিছনে ড্রাম ব্রেক রয়েছে। বাইকটির বর্তমান দাম ৯৫ হাজার টাকা।

Bajaj Platina 100cc

বাংলাদেশের অনেক বাইক প্রেমিকদের পছন্দের মোটরসাইকেলের অন্যতম ব্রান্ড হচ্ছে বাজাজ। বাজাজ বাইক কোম্পানীর Standard মোটরবাইকের মধ্যে বাজাজের প্লাটিনা সিরিজ এর মোটরবাইক গুলোর বেশ জনপ্রিয় এবং সফলতা অর্জন করেছে। এই ব্রান্ডের বাইক গুলো ক্রেতারা বেশ পছন্দ করে। বাজাজ প্লাটিনা ১০০ বাইকটি তেল সাশ্রয়ী করে তৈরী করা হয়েছে পাশাপাশি Speed এর দিক থেকেও বেশ ভালো। এই গাড়িটি আপনি প্রতি ঘন্টায় ৯৭ কিলোমিটার ম্পিড এর চালাতে পারবেন এবং সর্বোচ্চ মাইলেজ পাবেন প্রতি লিটারে ৯০ কি:মি। ৯৭ হাজার টাকার এই বাইকটি প্রায় সকলের নাগালের মাধ্যে।

বাংলাদেশের সেরা ১০ টি বাইক এবং প্রাইস

Hero Super Splendor

হিরো ব্রান্ডের অনেক বাইক রয়েছে। তার মাঝে হিরো সুপার স্প্লেন্ডার তেল সাশ্রয়ীর দিক থেকে অন্যতম। এই বাইকে আপনি পাবেন চার স্টোক এর একটি ইন্জিন। যা দিয়ে আপনি ঘন্টায় ৮০ কিলোমিটার বেগে চালাতে পারবেন। হিরো সুপার স্প্লেন্ডার বাইকটির বর্তমান মূল্য ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকা।

TVS Metro

TVS মোটরবাইকের নাম কম বেশি সকলেই শুনেছে। জনপ্রিয়তার জন্য মাইলেজের কথা মাথায় রেখে তৈরি করা হয় TVS Metro সিরিজের মোটরবাইকগুলো। এই বাইকটি ব্যবহৃত হচ্ছে ৯৯.৭৭ সিসির একটি ফোরস্ট্রক এয়ারকুলড ইঞ্জিন এবং বাইকটির টপ স্পিড প্রতিটি ঘন্টায় ৮৫ কিলোমিটার। ১২ লিটার ফুয়েল ট্যাংকের বাইকটি দিয়ে আপনি ৭০ কি:মি: পথ পাড়ি দিতে পারবেন মাত্র ১ লিটার তেল এ। টিভি এস মেট্রো ক্রয় করতে হলে বর্তমান বাজারে আপনাকে মাত্র ৮৯ হাজার টাকা খরচ করতে হবে।

Hero HF Deluxe

Hero HF Deluxe কে হিরো ব্রান্ডের মাইলেজ কিং বলা হয়। কারণ এটি অল্প তেলে বেশি চলে এবং এটির ইঞ্জিন ১০০ কমিউটিং ফোকাসড ইঞ্জিন। এই বাইকটি অল্প Power এ ভালো টর্ক ও ফুয়েল এফেন্সি পাওয়া যায়। এছাড়া ইঞ্জিনটি ফোর স্ট্রোক, এয়ার কুল্ড এবং সিঙ্গেল সিলিন্ডার দ্বারা তৈরি। আবার ইঞ্জিনটি প্রায় ৮.৩৫ পিএস Power ও ৮.৬ এনএম টর্ক দিতে বেশ সক্ষম। আবার চারটি গিয়ার দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে ও ম্যানুয়াল কিক এবং Electric system দ্বারা Start করা যাবে। হিরো এইচএফ ডিলাক্স প্রতি লিটারে ৬০ কি:মি: এবং প্রতি ঘন্টায় সর্বোচ্চ ৯০ কি:মি: বেগে চলতে পারে। হিরো এইচএফ ডিলাক্স বাইকের সামনে ও পিছনে ড্রাম ধরনের ব্রেক রয়েছে। এর বর্তমানে মূল্য মাত্র ৮৬,৯৯০ টাকা।

Hero Splendor iSmart Plus

এটি হিরো স্প্লেন্ডার সিরিজের তৃতীয় বাইক। যার জন্য এর নামের সঙ্গে আই স্মার্ট ট্যাগ যুক্ত হয়েছে। এর সিট বড় দেয়া হয়েছে ও হ্যান্ডেলবারটি আপ রাইট লম্বা। এটিতে পিলিয়ন সিটের জন্য সুন্দর একটি স্প্লিট গ্রেইব-রেইল রয়েছে। ধুলাবালি কাদা থেকে সুরক্ষা পাওয়ার জন্য চেইন কভার দেয়া হয়েছে। বাইকটিতে রয়েছে 100cc এর চার স্ট্রোক ও এয়ার কুল্ড ইঞ্জিন। বাইকটি অন্যান্য বাইকের মতোই ক্লাচ দুটি Standard এবং গিয়ারবক্স রয়েছে। Power transmission এর জন্য ফোর স্পিড সংযুক্ত রয়েছে এবং ক্লাচ ওয়েব মাল্টিপল ক্লাচ টাইপ। বাইকটি প্রতি লিটারে ৭০ কি:মি: যেতে সক্ষম এবং এর দাম ১,০৫,৯৯০ টাকা।

এখানে ৬ টি বাইক নিয়ে আলোচনা করলাম। এর বাইরেও আরও অনেক বাইক আছে যেগুলো আমাদের স্বার্ধ্যের মধ্যে এবং মাইলেজও ভালো। আমার চেষ্টা করবো সেগুলো নিয়ে আরও একটি আর্টিকেল লেখার। সে পর্যন্ত সবাই ভালো থাকবেন।

Leave a Reply